Recents in Beach

Google Play App

জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নিয়ে ২০ দলীয় জোটের সিদ্ধান্ত

বিএন ডেস্কঃ
জাতীয় ঐক্যফ্রন্টকে স্বাগত জানিয়েছে ২০ দলীয় জোট।  গত রাতে গুলশান কার্যালয়ে জোটের বৈঠক শেষে সমন্বয়ক ও বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেন, বিএনপি, জাতীয় ঐক্যপ্রক্রিয়া, জেএসডি ও নাগরিক ঐক্যের সমন্বয়ে নবগঠিত জাতীয় ঐক্যফ্রন্টকে স্বাগত জানিয়েছে ২০ দলীয় জোটের নেতারা।
তিনি বলেন, জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ঘোষিত দাবি ও ল্যগুলো নিয়ে জোটের বৈঠকে পর্যালোচনা করেছি। আলোচনা করে ২০ দলীয় জোট একমত হয়েছে, একটি স্বৈরাচারী সরকারকে হটিয়ে বাংলাদেশে গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠার েেত্র একটা অগ্রগতি হয়েছে। সে জন্য আমরা এই ফ্রন্টকে স্বাগত জানিয়েছি।
তিনি বলেন, আশা করি, এই জোট গঠনের মধ্য দিয়ে আগামী দিনে জনগণের আন্দোলন আরো বেগবান হবে। একই সাথে এই সরকার জনগণের ন্যায়সঙ্গত দাবি মেনে দেশে একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপে নির্বাচন অনুষ্ঠানের ব্যাপারে তাদের যে দায়িত্ব তা পালন করবে।
জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প থেকে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবি তোলায় এই জোটের নেতাদের ২০ দলীয় জোট ধন্যবাদ জানিয়েছে বলেও জানান নজরুল ইসলাম খান।
এ দিকে বৈঠক শেষে জোটের একটি শরিক দলের নেতা বলেন, বৈঠকে চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর জোটের নেতাদের আশস্ত করেছেন যে, জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সাথে নির্বাচনের বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত নেয়ার আগে জোটকে আগে জানানো হবে।
২০ দলীয় জোটের আরেক নেতা বলেন, আজ মঙ্গলবার জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সাথে বৈঠকের পর আবার ২০ দলীয় জোটের বৈঠক হবে। সেখানে আগামী দিনের কর্মসূচি ও নির্বাচনের বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলামের সভাপতিত্বে বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন নজরুল ইসলাম খান, জামায়াতে ইসলামীর নেতা মাওলানা আবদুল হালিম, কল্যাণ পার্টির সৈয়দ মোহম্মদ ইবরাহিম, বিজেপির আন্দালিব রহমান পার্থ, জাতীয় পার্টির (কাজী জাফর) মোস্তফা জামাল হায়দার, এলডিপির রেদোয়ান আহমেদ, এনপিপির ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, লেবার পার্টির ডা: মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, হামদুল্লাহ আল মেহেদী, ন্যাপের গোলাম মোস্তফা ভূঁইয়া, বাংলাদেশ ইসলামী ঐক্যজোটের অ্যাডভোকেট আবদুর রকিব, জাগপার তাসমিয়া প্রধান, জমিয়তের মুফতি ওয়াক্কাস, ন্যাপ ভাসানীর আজহারুল ইসলাম প্রমুখ।
সারা দেশের আইনজীবীদের নিয়ে মহাসমাবেশ করবে সুপ্রিম কোর্ট বার

গণতন্ত্র ও মানুষের ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য সারা দেশের আইনজীবীদের সম্পৃক্ত করার মাধ্যমে মহাসমাবেশ আয়োজনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি। এ ছাড়া সব মানবাধিকার সংগঠন এবং পেশাজীবীদের সঙ্গে আলোচনা করে দেশের মানুষের ভোটের অধিকার এবং নিরপেক্ষ নির্বাচনের পক্ষে একটি বৃহত্তর সমাবেশ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সংগঠনটি। গতকাল সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির এক সংবাদ সম্মেলনে সমিতির সভাপতি জয়নুল আবেদীন এ ঘোষণা দেন। 

বার সমিতি অডিটোরিয়ামে এই সংবাদ সম্মেলন সঞ্চালনা করেন সমিতির সম্পাদক ব্যারিস্টার এ এম মাহবুব উদ্দিন খোকন। সমিতির সহসভাপতি গোলাম মোস্তফা, গোলাম রহমান ভূঁইয়া, কোষাধ্যক্ষ নাসরিন আক্তার, সিনিয়র সহ-সম্পাদক কাজী মো: জয়নুল আবেদীন, সদস্য মাহফুজ বিন ইউসুফ, শফিউল আলম মাহবুব, আহসান উল্লাহ, মেহেদী হাসান উপস্থিত ছিলেন। এ ছাড়া আইনজীবী সমিতির সাধারণ সদস্য আবেদ রাজা, ওয়ালিউর রহমান খান, মো: আখতারুজ্জামান, আইয়ুব আলী আশ্রাফী, মোহাম্মদ আলী, আনিছুর রহমান খানসহ শতাধিক আইনজীবী এ সময় উপস্থিত ছিলেন। 
সংবাদ সম্মেলনে জয়নুল আবেদীন বলেন, গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া পুনঃউদ্ধারে সুপ্রিম কোর্ট বার যা যা করার তাই করবে। বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি অতীতে বিচার বিভাগের স্বাধীনতা, মানবাধিকার ও গণতন্ত্র উদ্ধারের আন্দোলন করে স্বৈরাচার সরকারের পতন ঘটাতে সহায়ক ভূমিকা পালন করেছে। দেশের বর্তমান ক্রান্তিকালে বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি গণতন্ত্র এবং মানুষের ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য সারা দেশের আইনজীবীদের সম্পৃক্ত করার মাধ্যমে মহাসমাবেশ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ