Recents in Beach

Google Play App

নীলফামারী জেলায় ৮৫৭ মণ্ডপে অনুষ্ঠিত হবে দুর্গোৎসব

মোঃ সাদিকউর রহমান শাহ্ (স্কলার)ঃ আসন্ন শারদীয় দুর্গোৎসব সুষ্ঠু ভাবে সম্পন্নের লক্ষে মত বিনিময় সভা করেছে নীলফামারী জেলা প্রশাসন। জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে সোমবার দুপুরে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক বেগম নাজিয়া শিরিন। সভায় নীলফামারী পৌরসভার মেয়র দেওয়ান কামাল আহমেদ, পুলিশ সুপার মুহাম্মদ আশরাফ হোসেন, র্যাব-১৩, সিপিসি-২’র কমান্ডার মেজর নাজমুল হুদা, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আজাহারুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) খন্দকার নাহিদ হাসান, জেলা ত্রাণ ও পুর্নবাসন কর্মকর্তা আবু তাহের মোহাম্মদ আখতারুজ্জামান ও সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবুজার রহমান বক্তব্য দেন সভায়। জেলা ত্রাণ ও পুর্নবাসন কর্মকর্তার দফতর সুত্র জানায়, এবারে নীলফামারী জেলার বিভিন্ন উপজেলায় মোট ৮৫৭টি মণ্ডপে শারদীয় দুর্গোৎসব অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্যে ডিমলা উপজেলায় ৭৬টি, ডোমারে ৯৪টি, জলঢাকায় ১৬৯টি, কিশোরগঞ্জে ১৫৩টি, নীলফামারী সদরে ২৭৮টি এবং সৈয়দপুর উপজেলায় ৮৭টি মণ্ডপ রয়েছে। পুলিশ সুপার মুহাম্মদ আশরাফ হোসেন জানান, উৎসব মুখর ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে শারদীয় দুর্গোৎসব সম্পন্নে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তিনি বলেন, পূজা চলাকালে মণ্ডপগুলোয় নিরাপত্তায় দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি টহল পুলিশ, সাদা পোশাকে পুলিশ এবং স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে দায়িত্ব পালন করবে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। জেলা পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি অক্ষয় কুমার রায় জানান, ইতো মধ্যে জেলার অধিকাংশ মণ্ডপে প্রতিমা বানানোর কাজ শেষ পর্যায়ে। কিছু কিছু মণ্ডপে এখনো কাজ চললেও তা দ্রুতই শেষ হবে। কয়েকদিন পরেই শুরু হবে রঙ’র কাজ। পাশাপাশি চলছে সাজ সজ্জার কাজও। উল্লেখ্য, গত বছর জেলায় ৮৩৬টি মণ্ডপে দুর্গোৎসব অনুষ্ঠিত হয়। এর মধ্যে ছিল ডিমলায় ৭৭টি, ডোমারে ৯৩টি, জলঢাকায় ১৬৪টি, কিশোরগঞ্জে ১৪৪টি, নীলফামারী সদরে ২৭৮টি এবং সৈয়দপুরে ৮০টি।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য