বাঁশখালীতে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিটের আগুনে পুড়ল মসজিদ

মোহাম্মদ এরশাদঃ
চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার ৩নং খানখানাবাদ ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডে সমুদ্রের কোল ঘেষে লাগোয়া হযরত মাওলানা সৈয়দ অাজিম উদ্দীন শাহ্ (রাঃ) জামে মসজিদ অদ্য ১০/১২/২০১৯ইং তারিখ সকাল অানুমানিক ৫.০০ঘটিকায় বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে অাগুন লেগে মসজিদের এক তৃতীয় অংশ পুড়ে যায়। ফজরের নামাজ পড়ার জন্য লোকজন জাগ্রত হলে মসজিদে অাগুন দেখে এলাকাবাসী এগিয়ে এসে মসজিদের অাগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। 
এই ব্যাপারে এস.এম.ফরহাদ রেজা বলেন মসজিদে অাগুন লাগার খবর শুনে ঘটনাস্থলে এসে দেখে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে অাগুন লাগার কারণে মসজিদের লাইট, ফ্যান, টিন, মাইক পুড়ে ছাই হয়ে যায় এবং দেওয়ালে ফাটল ধরে। 
মসজিদটি ইতিপূর্বে দ্বিতীয় তলা বিশিষ্ট পাকা দালান ছিল। কিন্তু বিগত ২০০৭ থেকে ২০০৯ সাল পর্যন্ত বেড়িবাধ ভেঙ্গে লবণাক্ত পানি ঢুকে ঘর বাড়ী বিলীন  হয়ে গেলে মসজিদটি সাগরে মধ্যে বিলীন হযে যায়। পরবর্তীতে ২০১০ সালে বেড়িবাধ নির্মিত হলেও মসজিদটির চিহ্নিত করণে বেড়িবাধের সাথে লাগোয়া পূর্ব পাশে বাঁশের বেড়া ও টিনের ছাউনী দ্বারা সংস্কার করা হয়। পরবর্তীতে (জিএস) ফাউন্ডশনের অর্থায়নে ও এলাকার জনসাধরনের সহায়তায় সেমিপাকা টিনের ছাউনী দিয়ে নির্মান করা হয়। 
মসজিদটি  সমুদ্র সৈকতের সাথে লাগোয়া থাকার কারণে সমুদ্র সৈকতে বেড়াইতে অাসা পর্যটকগণ এই মসজিদে নামাজ অাদায় করত। বর্তমানে মসজিদটি আগুনে পুড়ে যাওয়াই ধর্মপ্রাণ মুসলিমদের নামাজ অাদায় করা সম্ভব হচ্ছে না।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য