Recents in Beach

Google Play App

সিজেকেএস ইস্পাহানি কর্পোরেট ক্রিকেটে চ্যাম্পিয়ন এফএমসি গ্রুপ

মোহাম্মদ এরশাদঃ
সিজেকেএস-ইস্পাহানি কর্পোরেট টি-২০ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট শুরু হয় গত ১২ জানুয়ারি। ডাবল লিগের এ টুর্নামেন্ট প্রথমে তেমন সাড়া জাগাতে না পারলেও আস্তে আস্তে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতার আভা ছড়াতে শুরু করে। টাকা না ছাড়ায় নিজের প্লেয়ারও ধরে রাখতে পারেনি ইস্পাহানি। ফলে কাগজে-কলমে দুর্বল দলের তকমা নিয়ে প্রথম রাউন্ডে তিনটি ম্যাচেই হেরে যায় তারা, তবে শেষ দিকে তারা দু’টি ম্যাচ জিতলেও ফাইনালের টিকিট পায় নি।
অন্যদিকে সিটি কর্পোরেশন একাদশ জাতীয় তারকা নাজিম, মিঠুদের নিয়ে শক্তিশালী দল গঠন করলেও প্রত্যাশিত ফল পায় নি। ৬ ম্যাচের ৫টিতে জিতে এফএমসি ও ৪টি জিতে সায়ারা এগ্রো ফার্ম লি: ফাইনালে খেলার যোগ্যতা অর্জন করে। গতকাল এম.এ আজিজ স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত উত্তেজনাপূর্ণ ফাইনাল ম্যাচে এফ.এম.সি গ্রুপ ৩ উইকেটে সারা এগ্রো ফার্ম লি:কে পরাজিত করে শিরোপা নিজেদের করে নেয়। এ ম্যাচটিতে আম্পায়ারের সিদ্ধান্তে অসন্তোষ এবং দুই দলের কর্মকর্তাদের ইগো সমস্যায় সৃষ্ট অসহিষ্ণুতার কারণে খেলা কয়েক দফা বন্ধ থাকে যা চমৎকার আয়োজনকে কিছুটা কালিমালিপ্ত করে। অবশ্য আম্পায়ারের রিপোর্টের ভিত্তিতে এর জন্য দায়িদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন টুর্নামেন্ট সংশ্লিষ্টরা।
চট্টগ্রাম জেলা ক্রীড়া সংস্থার ব্যবস্থাপনায় এবং ইস্পাহানী গ্রুপ অব কোম্পানিজ এর আর্থিক পৃষ্ঠপোষকতায় সিজেকেএস ইস্পাহানি কর্পোরেট টি-২০ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট-২০১৯ এর ফাইনাল খেলায় গতকাল টসে জিতে প্রথমে ফিল্ডিং এর সিদ্ধান্ত নেয় এফ.এম.সি গ্রুপ। ব্যাট করতে নেমে সারা এগ্রো ফার্ম লি: নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১২৬ রান সংগ্রহ করে। দলের পক্ষে মাঈনুদ্দিন রুবেল ৩৪, পীর মোহাম্মদ সৌরভ ২০, ইরফান শুক্কুর ৩৪ এবং ইফতেখার সাজ্জাদ ২১ রান করেন। এফএমসির হয়ে আবদুল্লাহ আল মামুন তিনটি, ইফরান হোসেন দুটি এবং সামসুদ্দিন বাপ্পা একটি উইকেট শিকার করেন।
জবাবে ব্যাট করতে নেমে এফ.এম.সি গ্রুপ এক ওভার হাতে রেখে ৭ উইকেটের বিনিময়ে ১২৮ রান সংগ্রহ করে। দলের হয়ে কফিল উদ্দিন ২৮, সামসুদ্দিন বাপ্পা ২৬, সাদিকুর রহমান ৩২* ও তারেক আজিজ ২৩* রান করেন। সায়ারা এগ্রো ফার্মস লিমিটেডের পক্ষে মোহাম্মদ ওয়াহিদ তিনটি এবং বেলাল হোসেন দুটি উইকেট নেন।
উক্ত খেলায় এফ.এম.সি গ্রুপের ন্যাটা ব্যাটসম্যান সাদিকুর রহমান ২৪ বলে ব্যক্তিগত ৩২ রান সংগ্রহ করে ম্যান অব দ্যা ম্যাচ নির্বাচিত হয়। সুদৃশ্য ট্রফি ছাড়াও চ্যাম্পিয়ন ও রানার্স আপ দলকে প্রাইজমানি দেওয়া হয়।
খেলা শেষে সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে সিটি মেয়র ও সিজেকেএস সাধারণ সম্পাদক আলহাজ আ জ ম নাছির উদ্দীন প্রধান অতিথি থেকে পুরস্কার বিতরণ করেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন স্পন্সর প্রতিষ্ঠান ইস্পাহানী গ্রুপ অব কোম্পানীজ এর চেয়ারম্যান মির্জা সালমান ইস্পাহানি। সিজেকেএস নির্বাহী কমিটির সদস্য ও ক্রিকেট কমিটির ভাইস-চেয়ারম্যান দিদারুল আলম চৌধুরী’র সভাপতিত্বে উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থার সহ-সভাপতি আলহাজ আলী আব্বাস, সিজেকেএস সহ-সভাপতি মোঃ হাফিজুর রহমান, অতিরিক্ত সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব সৈয়দ শাহাবুদ্দিন শামীম, যুগ্ম সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, কোষাধ্যক্ষ শাহাবুদ্দীন মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর, সিজেকেএস নির্বাহী সদস্য ও ক্রিকেট কমিটির সম্পাদক এ.কে.এম. আবদুল হান্নান আকবর, সিজেকেএস ক্রিকেট কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান মিনহাজউদ্দিন আহমেদ, সিজেকেএস নির্বাহী সদস্য ও ক্রিকেট কমিটির যুগ্ম সম্পাদক গোলাম মহিউদ্দীন হাসান, সিজেকেএস নির্বাহী সদস্য আলহাজ্ব আবুল হাশেম, এ.কে.এম এহসানুল হায়দার চৌধুরী বাবুল, নির্বাহী সদস্য মোহাম্মদ অহিদ সিরাজ চৌধুরী স্বপন, ইঞ্জিনিয়ার জসীম উদ্দিন, সিজেকেএস কাউন্সিলর ও ক্রিকেট কমিটির যুগ্ম সম্পাদক শওকত হোসেন, সিজেকেএস কাউন্সিলর ডেরিক র‌্যান্ডলফ, আকতারুজ্জামান, মকসুদুর রহমান বুলবুল, মোহাম্মদ শাহজাহান, ইয়াছিন চৌধুরী, সাইফুল্লাহ্ চৌধুরী, এস.এম আব্দুল্লাহ আল মামুন, প্রবীন কুমার ঘোষ, এনামুল হক, হারুনুর রশিদ, দিদারুল আলম, অংশগ্রহণকারী কর্পোরেট হাউজের খেলোয়াড় ও কর্মকর্তাবৃন্দসহ প্রেস ও ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ প্রমূখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সিজেকেএস কাউন্সিলর ও ক্রিকেট কমিটির যুগ্ম সম্পাদক হাসান মুরাদ বিপ্লব।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য