Recents in Beach

Google Play App

তারুণ্যের কাণ্ডারি সম্মাননা পেলেন বাঁশখালীর কৃতি সন্তান শহিদুল মোস্তফা চৌধুরী মিজান

মোহাম্মদ এরশাদঃ
 আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাংসদ ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনসহ চট্টগ্রামের প্রবীণ ৭ সফল গুণিজনকে ‘৫ম চট্টলার বীর সম্মাননা ২০১৯’ প্রদান করেছে চট্টগ্রামের প্রথম লাইফস্টাইল ম্যাগাজিন ‘ক্লিক’ পরিবার।

একই সঙ্গে এই প্রজন্মের সফল ৬ তরুণকে তারুণ্যের কাণ্ডারি হিসেবে সম্মাননা প্রদান করা হয়। সেই সাথে ক্যানসার-আক্রান্ত ৬ শিশুকে নানা ধরনের উপহারসামগ্রীও প্রদান করা হয়েছে।

বুধবার (১৮ ডিসেম্বর) সন্ধ্যা ৬ টায় চট্টগ্রামের শিল্পকলা একাডেমির মুক্তমঞ্চে ৫ম বারের মতো চট্টলার বীর ও তারুণ্যের কাণ্ডারি সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানের আয়োজন করে ‘ক্লিক’ পরিবার।

‘৫ম চট্টলার বীর সম্মাননা ২০১৯’ প্রাপ্তরা হলেন, আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সংসদ সদস্য মুক্তিযোদ্ধা ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, বাংলাদেশ পুলিশের অতিরিক্ত মহাপরিদর্শক মো. শাহাব উদ্দীন কোরেশী, শিক্ষা উদ্যোক্তা ও সমাজসেবক সাফিয়া গাজি রহমান, সংগীতজ্ঞ, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ওস্তাদ মিহির লালা, সাংবাদিক ও ক্রীড়া সংগঠক আলহাজ আলী আব্বাস, শিল্পোদ্যোক্তা ও ব্যবসায়ী এসএম আবু তৈয়ব, ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী একেএম ফজলুল্লাহ।


২০১৯ সালের তারুণ্যের কাণ্ডারি হিসেবে সম্মাননাপ্রাপ্ত তরুণরা হলেন, বোরহানুল হাসান চৌধুরী সালেহীন (উদ্যোক্তা), শৈবাল দাশ সুমন (রাজনীতিবিদ),
বাঁশখালীর কৃতি সন্তান জুনিয়র চেম্বার ইন্টারন্যাশনাল চিটাগাং কসমোপলিটান এর সভাপতি, বাঁশখালী ক্রিকেট একাডেমির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান তরুণ উদোক্তা শহীদুল মোস্তফা চৌধুরী মিজান (সমাজসেবক), ইমরান আহমেদ (উদ্যোক্তা) লতিফা আনসারী রুনা (সাংবাদিক), পিবিআই পরিদর্শক সন্তোষ কুমার চাকমা।

সফল ব্যক্তিদের হাতে সফলতার শুভেচ্ছাস্মারক তুলে দেন অনুষ্ঠানের উদ্বোধক চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন (সিএমপি) পুলিশ কমিশনার মো. মাহাবুবর রহমান।

এ সময় আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি গোলাম ফারুক খন্দকার। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ক্লিক ম্যাগাজিনের সম্পাদক জালাল উদ্দিন সাগর।

২০১৫ সাল থেকে ধারাবাহিকভাবে এই সম্মাননা অনুষ্ঠানের আয়োজন করে আসছে জানিয়ে ক্লিক সম্পাদক জালাল উদ্দিন সাগর বক্তব্যে বলেন, চট্টগ্রামকে ভালোবেসে বিভিন্ন পর্যায়ে যারাই অবদান রেখেছেন আমাদের কাছে তারাই চট্টলার বীর।

তিনি আরো বলেন, এভাবে যারা সম্মাননা পেলেন তাদের মধ্যে অন্যতম সাফিয়া গাজি রহমান। নিজে ক্যান্সারআক্রান্ত হয়েও ২০১০ সাল থেকে এই মহীয়সী নারী ক্যান্সার-আক্রান্ত শিশুদের সুচিকিৎসার জন্য লড়াই করছেন।

ক্লিক পরিবারের এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে উদ্বোধক সিএমপি কমিশনার মাহাবুবর রহমান বলেন, ভালো কাজ মানুষকে বিশাল করে তুলে। আমাদের এই চট্টগ্রাম যাদের গুণে আজ বিশ্বব্যাপী পরিচিত ও সমাদৃত হয়েছে এবং হচ্ছে তাদেরকে সম্মান জানিয়ে ক্লিক ভালো কাজ করার জন্য যে উৎসাহ জুগিয়ে যাচ্ছে তা প্রসংশার দাবি রাখে।

তিনি আরো বলেন, আমরা বীরদের সম্মান দিতে পারি না। আমরা মরণোত্তর সম্মান দেই। কিন্তু তারুণ্যের কিংবদন্তিদের সম্মান উন্নয়নে ভূমিকা রাখে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য