Recents in Beach

Google Play App

বাঁশখালীর দীর্ঘ দুর্ভোগের অবসান হচ্ছে

বাঁশখালীর পুঁইছড়ির ছনুয়া ইউনিয়নসহ কুতুবদিয়া যাতায়াতের একমাত্র সড়ক প্রেমবাজার হতে সরলিয়া বাজার পর্যন্ত সড়কটি সংস্কার কাজ শুরু হওয়ায় সাধারণ জনগণ দীর্ঘদিনের ভোগান্তি থেকে মুক্তি পাবে বলে স্থানীয়রা অভিমত ব্যক্ত করেছেন। প্রায় কোটি টাকা ব্যয়ে গুরুত্বপূর্ণ সড়কটির কাজ পায় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান জনসেবা এন্টারপ্রাইজ। কাজে প্রায় ৯৯ লক্ষ টাকা বরাদ্দ থাকলেও ৫% লেস দিয়ে কাজ করছে তারা।
বাঁশখালী উপজেলা স্থানীয় সরকার প্রকৌশলী অধিদপ্তর এলজিইডির অধীনে পুঁইছড়ি ইউনিয়নের প্রেমবাজার হতে সরলিয়া বাজার পর্যন্ত সড়ক সংস্কারের কাজের জন্য টেন্ডার আহ্বান করা হলে নিম্ন দরদাতা হিসাবে মেসার্স জনসেবা এন্টারপ্রাইজ কাজের অনুমতিপত্র পায়। কাজ পাওয়ার পর প্রেমবাজার পুঁইছড়ি মকছুদা খাতুন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় হতে পশ্চিম অংশ হতে সরলিয়া বাজার পর্যন্ত রাস্তার কাজ শুরু করেছে।
স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘদিন ধরে এ সড়কে চলাচলে নানা ভোগান্তির প্রেক্ষিতে বর্তমান সাংসদ মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরীর প্রচেষ্টায় বরাদ্দ প্রাপ্তি সাপেক্ষে কাজ শুরু হয়।
পুঁইছড়ি ইউনিয়নের বাসিন্দা আলী আকবর, কামাল হোসেন বলেন, প্রেমবাজার হতে সরলিয়া বাজারের উপর দিয়ে কুতুবদিয়ার উপজেলার ও ছনুয়া ইউনিয়নের হাজার হাজার মানুষ যানবাহন নিয়ে চলাচল করে। তাই গুরুত্বপূর্ণ এ সড়কটির কাজ দ্রুত শেষ হলে মানুষ উপকৃত হবে।
ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান জনসেবা এন্টারপ্রাইজের প্রধান মো. ইব্রাহিম আল হোসাইনী বলেন, প্রেমবাজার হতে সরলিয়া বাজার সড়কটির কাজ সিডিউল মোতাবেক হচ্ছে। প্রায় দেড় কিলোমিটার সংস্কার কাজে কিছু হচ্ছে ব্রিক সলিন. যা শেষ পর্যায়ে। আর কিছু কার্পেটিংয়ের।
পুঁইছড়ি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সোলতানুল গণি চৌধুরী লেদু মিয়া বলেন, এই সড়কটির কাজ যথানিয়মে হচ্ছে না। সিডিউল অনুসারে সিমেন্ট ও কম বালি দেয়। কাজ ঠিকমতো না হলে সাধারণ মানুষ কষ্ট পাবে।
বাঁশখালী উপজেলা এলজিইডি প্রকৌশলী আশরাফুল ইসলাম ভুঁইয়া বলেন, এ সড়কের কাজের মান নিয়ে যারা প্রশ্ন তুলছে তাদের সুনির্দিষ্ট অভিযোগ দিতে হবে। আমরা যেদিন কাজ পরিদর্শনে যাব অভিযোগকারীদের অবশ্যই থাকতে হবে।
/আজাদী! 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য