Recents in Beach

Google Play App

বাঁশখালী বাসির কাছে মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরীর কন্যা রাওকাতুন নুর চৌধুরীর খোলা চিঠি

চট্টগ্রাম-১৬ বাঁশখালী আসন থেকে আওয়ামীলীগ ও মহাজোট মনোনীত নৌকার প্রার্থী আলহাজ্ব মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী এমপি ২য় কন্যা রাওকাতুন নুর চৌধুরীর পক্ষ থেকে বাঁশখালীবাসীর জন্য একটি খোলা চিঠি

আস্সালামু আলাইকুম
প্রিয় বাঁশখালীবাসী

আমি রাওকাতুন নুর চৌধুরী, আমার বাবা নৌকার মনোনীত প্রার্থী আলহাজ্ব মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী এম.পি.। আমার বয়স ২৪ বছর। বাবাকে সঙ্গে নিয়ে আমার দুই বা তিনবার জন্মদিনের কেক কাটার সুযোগ হয়েছে। আমাদের যে সময় দেওয়ার কথা ছিল সেটি আপনাদের বাঁশখালীবাসীর জন্য দিয়েছেন আমার বাবা।

গত শনিবার (১৫ডিসেম্বর) বিকেলে বাঁশখালী উপজেলায় বাবার পক্ষে গণসংযোগকালে এসব কথা বলেন রাওকাতুন নুর চৌধুরী।

তিনি বলেন, বাবার দিন শুরু হয় সকাল সাতটায়। রাতে ঘুমাতে ১২টা-১টা বেজে যায়। দুপুরের খাবার না খেয়ে সচিবালয়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা বসে থাকেন। আমি দেখেছি, আমার বাবার কাছে আপনাদের প্রতি ভালোবাসার টান আছে। তিনি শুধু স্বপ্ন দেখেন না, স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে জানেন।

২০১৪ সাল থেকে এই পর্যন্ত বাঁশখালীতে অনেক উন্নয়ন মূলক কাজ হয়েছে। উন্নয়ন করে বসে থাকলে হবে না। মানুষের কাছে উন্নয়নবার্তা পৌঁছে দিতে হবে। বর্তমান বাঁশখালীতে আরও অনেক কাজ চলমান রয়েছে। বাঁশখালীর অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করতে আপনারা আরেক বার আমার বাবাকে নৌকায় ভোট দিন। কথা দিয়ে যাচ্ছি, বাবাকে যদি ভোট দেন, বাঁশখালীর চেহেরা পাল্টে যাবে ইনশা আল্লাহ।

‘যখন আমি দেখি মানুষ বাঁশখালী আদর্শ উপজেলা যখন বলে তখন আমার মনের সব কষ্ট মুছে যায়। বাবার জন্য গর্ব হয়। যোগ করেন রাওকাতুন নুর চৌধুরী।

ব্যর্থতাকে সফলতায় পরিণত করতে হলে ভয়কে জয় করতে হবে। এখন বাঁশখালী সমৃদ্ধির পথে। অনেক উন্নয়ন হয়েছে। আগামীতে এই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আবারো নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে আমার বাবাকে জয়যুক্ত করার জন্য বিনীতভাবে সকলের প্রতি অনুরোধ করছি।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের আদর্শ হচ্ছে-বাঙালি জাতীয়তাবাদ। আওয়ামী লীগ করলে বাংলাদেশকে ভালোবাসতে হবে। মানুষকে ভালোবাসতে হবে। দ্বিতীয় আদর্শ গণতন্ত্র। তৃতীয় আদর্শ ধর্মনিরপেক্ষতা। বাঁশখালী এক্ষেত্রে উদাহরণ। এখানে বিভিন্ন ধর্মের মানুষের সহাবস্থান রয়েছে। এ তিনটি আদর্শে আমরা বিশ্বাসী। আমরা আওয়ামী লীগের সদস্য।

আওয়ামী লীগের কথা বলতে গেলে আমাকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কথা বলতে হয়।শুধু বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে জানলে হবে না। আপনাদের শেখ মুজিবুর রহমান সম্পর্কে জানতে হবে।বঙ্গবন্ধু হওয়ার আগে তার রাজনৈতিক জীবন জানতে হবে। আপনাদের বুঝতে হবে। তিনি কোনো রাজনৈতিক পরিবার থেকে আসেননি।নিজ যোগ্যতায় ৫২, ৬৬, ৬৯, ৭১ একের পর এক বড় বড় নেতাকে ফেলে এ বাংলাদেশকে স্বাধীন করেছেন। কিংবদন্তি নেতা হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। বঙ্গবন্ধুর জীবন সম্পর্কে জানলে আওয়ামী লীগের আদর্শ সম্পর্কে জানবেন। বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে জানতে বঙ্গবন্ধুর "অসমাপ্ত আত্মজীবনী" বইটি পড়তে হবে। তাহলে বুঝতে পারবেন বঙ্গবন্ধু কেমন মানুষ ছিলেন 

রাওকাতুন নুর চৌধুরী বলেন, আমি নতুন প্রজন্ম।আমার আদর্শের সঙ্গে আওয়ামী লীগের আদর্শ মিল পায়। আমার আদর্শ হচ্ছে দেশপ্রেম, বাঙালি জাতীয়তাবাদ, গণতন্ত্র ও ধর্মনিরপেক্ষতা।

তিনি বলেন ১৯৭১ সাল থেকে আজ পর্যন্ত অনেক দল ক্ষমতায় এসেছে। বছরের পর বছর অপরাজনীতির কারণে হাজারো নিরীহ মানুষ প্রাণ হারিয়েছে। অনেকে অপরাজনীতির বলি হয়েছে।অনেক মা সন্তানহারা হয়েছে। অনেক বাস যাত্রী পেট্রল বোমায় প্রাণ হারিয়েছে। পিটিয়ে মারা হয়েছে মুজিব আদর্শের সৈনিকসহ অনেক নিরীহ মানুষকে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সাহায্যো নিয়ে আমরা তাদের তালিকা করে সাহায্য সহযোগিতা করেছি।

তিনি বলেন, মিছিল, স্লোগান, মিটিং থেকে আমরা বেরিয়ে আসতে চাই। মানুষকে জোর করে এনে বসিয়ে রাখা হয়। গণসংযোগ করতে হবে। জোর করার রাজনীতি নতুন প্রজন্ম পছন্দ করে না।এগুলো আমরা আস্তে আস্তে বদলাতে চাই।

আমরা বাঁশখালীবাসী ঐক্যবদ্ধ। আমরা যখন সামাজিক কাজ করি ধর্ম, বর্ণ, দলের পরিচয়ের চেয়ে বড় পরিচয় আমরা মানুষ। মানুষ হিসেবে আমাদের জন্মভূমির জন্য কাজ করতে হবে।    

রাওকাতুন নুর চৌধুরী বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাঁশখালী আওয়ামী লীগের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরাও সমানে নির্বাচনী প্রচারণা চালাচ্ছেন। আশাকরি,একটি অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে ও সকলে মিলে দলমত নির্বিশেষে নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে আমার বাবা কে ও জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করবেন। সকলের নিকট দোয়া ও নৌকা মার্কায় ভোট চাই।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য