Recents in Beach

Google Play App

গোপন দৃশ্য ফাঁসের হুমকি স্কুলছাত্রীর আত্মহনন


বিএন ডেস্কঃ আপত্তিকর মেসেজ এবং গোপন দৃশ্য ভিডিও ইন্টারনেটে ছেড়ে দেয়ার হুমকি প্রেমিকের। আর স্কুল কর্তৃপক্ষ সাফ জানিয়ে দেয় তাকে আর স্কুলে আসতে হবে না। এসব কারণে ভেঙে পড়ে কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার আটিগ্রামের নবম শ্রেণীর মেধাবী ছাত্রী সুমাইয়া খাতুন (১৫)। বেছে নেয় আত্মহননের পথ। প্রেমিকের এমন আচরণ সইতে না পেরে শনিবার সন্ধ্যায় নিজ ঘরের আড়ায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে সুমাইয়া খাতুন। পরিবারের পক্ষ থেকে এমন ঘটনার জন্য প্রেমিক ও তার পরিবারের লোকজনকে দায়ী করা হলেও পুলিশ বলছে, ঘটনা যাই হোক অভিযোগ পেলে নেয়া হবে ব্যবস্থা। এলাকাবাসী জানায়, মিরপুর উপজেলার নতুন আটিগ্রাম এলাকার নবম শ্রেণীর ছাত্রী সুমাইয়া খাতুনের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে পাশের পুরাতন আটিগ্রাম এলাকার আব্দুল্লাহর ছেলে শাহরিয়ার আসিফ জমজমের। নানা কারণে ভাঙাগড়ার মধ্যদিয়েই চলছিল তাদের সম্পর্ক। শনিবার সন্ধ্যায় শাহরিয়ার আসিফ জমজম সুমাইয়ার মায়ের মোবাইলে আপত্তিকর মেসেজ পাঠায়। একই সঙ্গে তাদের দুজনের গোপন ভিডিও দৃশ্য ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকিও দেয় শাহরিয়ার। এসব কারণে মানসিকভাবে ভেঙে পড়ে সুমাইয়া। এরই কিছুক্ষণ পর সুমাইয়া তার নিজ কক্ষে ওড়নাতে ঝুলে আত্মহত্যার পথ বেছে নেয়। এ বিষয়ে সুমাইয়ার বাবা শফিকুল ইসলাম জানান, আমার একটি ছেলে ও একটি মেয়ে। ছেলেটি বড়। সুমাইয়া ছোট হওয়ায় একটু বেশিই আদরের। কিন্তু বখাটে শাহরিয়ার আমার মেয়েকে বাঁচতে দিল না। তার অশোভন আচরণের কারণেই মেয়ে সুমাইয়া আত্মহত্যা করেছে। মেয়ের এমন করুণ মৃত্যুর জন্য শাহরিয়ার ও তার পরিবারকে দায়ী করেন তিনি। সুমাইয়ার বান্ধবী নূপুর খাতুন জানায়, সুমাইয়া খুব শান্ত প্রকৃতির মেয়ে। শাহরিয়ারের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক ছিল। কিন্তু মাঝে তাদের মধ্যে সম্পর্কের ঘাটতি হয়। শনিবার শাহরিয়ার মোবাইল মেসেজে আপত্তিকর কিছু লেখা এবং গোপনীয় কিছু ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকিতে সুমাইয়া আত্মহত্যা করে। 
আটিগ্রাম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক লুৎফর রহমান জানান, আমি বিষয়টি সম্পর্কে সঠিক জানি না। তবে স্কুল থেকে কেন বের করা দেয়া হয়েছে প্রধান শিক্ষক জানেন।
এ বিষয়ে মিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম জানান, আমাদের কাছে প্রাথমিকভাবে যা মনে হয়েছে সুমাইয়া আত্মহত্যা করেছে। তবে মেয়েটির পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ পেলে অবশ্যই আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
/ডেসটিনি

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য