Recents in Beach

Google Play App

বেগম রোকেয়া সাখাওয়াত স্মৃতি স্বর্ণপদক বৃত্তি ও গুণীজন সংবর্ধনা পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠান

বিএন ডেস্কঃগতকাল শনিবার কালিপুর নুরজাহান কনভেনশন হল  মিলনায়তনে ২০১৬ সালে অনুষ্ঠিত পরীক্ষায় বেগম রোকেয়া সাখাওয়াত স্মৃতি স্বর্ণপদক বৃত্তিপ্রাপ্ত ছাত্র-ছাত্রীদের  বৃত্তি প্রদান গুণীজন সংবর্ধনা অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। বাঁশখালী উপজেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা মোমেনা আক্তারের  সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বাঁশখালী আওয়ামীলীগের তিন তিন বারের সফল সভাপতি চট্টগ্রাম ১৬ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী এমপি। এছাড়াও বিশেষ অতিথি ছিলেন কালীপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট আনম শাহাদত আলম,বাহারছড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তাজুল ইসলাম, কালীপুর আওয়ামীলীগের নেতা প্রদীপ গুহা সহ আরো বিভিন্ন স্কুল কলেজের শিক্ষক শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহন করেন।
প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, বেগম রোকেয়া সাখাওয়াত স্মৃতি স্বর্ণপদক বৃত্তি  তার সীমাবদ্ধতা থাকা সত্ত্বেও দীর্ঘদিন যাবৎ জাতির বৃহত্তর কল্যাণের লক্ষ্যে যে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে তা নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবি রাখে। আমি তাদের উত্তরোত্তর সমৃদ্ধি কামনা করছি। একইসাথে তিনি বলেন, আজ তোমরা যারা বৃত্তি পেয়েছ তোমাদের সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার দীপ্ত শপথ নিতে হবে। তোমাদের মাঝে লুকিয়ে আছে অমীত সম্ভাবনার বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ। তাই এখন থেকে সৎ, নীতি-নৈতিকতাসম্পন্ন মানুষ হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলতে হবে। আলহাজ্ব মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী এমপি উপস্থিত সকল অভিভাবককে ধন্যবাদ দিয়ে বলেন, আজ যেমন আপনার সন্তানরা অনেক ছাত্র-ছাত্রীর মাঝে বৃত্তি পেয়ে নিজেকে যোগ্য প্রমাণ করেছে, এখন আপনাদের দায়িত্ব হচ্ছে আপনাদের সন্তানদের যথাযথ নৈতিক শিক্ষায় শিক্ষিত করে তাদের আগামী পৃথিবীর যোগ্যতাসম্পন্ন মানুষ হিসেবে গড়ে তোলা।


তিনি আরো বলেন, নতুন প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানতে হবে। যারা বাংলাদেশ জন্মের সঠিক ইতিহাস জানে না, তারা কখনও সফল মানুষ হতে পারবে না। দেশপ্রেম নেই বলে দেশে জঙ্গিবাদ সন্ত্রাস উৎপত্তি হচ্ছে।

সভাপতির  বক্তব্যে মোমেনা আক্তার উপস্থিত ছাত্র-ছাত্রীদের উদ্দেশ্যে বলেন, তোমরা যারা আজ  বেগম রোকেয়া সাখাওয়াত স্মৃতি স্বর্ণপদক বৃত্তি ও গুণীজন সংবর্ধনায় অংশ নিয়ে কৃতিত্বের সাথে বৃত্তি পেয়েছ তোমাদের জানাই অভিনন্দন। তিনি বলেন, তোমাদের একথা স্মরণ করে দিতে চাই, আজ তোমরা দক্ষিণ চট্টগ্রামে ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে শ্রেষ্ঠ হয়েছে, তাই বলে তুমি অনেক বড় হয়ে যাওনি। বর্তমান পৃথিবী অনেক চ্যালেঞ্জিং, তাই তোমরা এখানে বসে না থেকে পৃথিবীকে গড়ার জন্য তোমাদের কঠিন অধ্যবসায় ও পরিশ্রম করতে হবে। কেননা পৃথিবীকে গড়তে হলে আগে নিজেকে প্রস্তুত হতে হবে। তাই তোমাদের এখন প্রস্তুতি নেয়ার উদাত্ত আহ্বান জানাচ্ছি।
প্রধান অতিথি এবং বিশেষ অতিথিবৃন্দ বৃত্তিপ্রাপ্ত ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে সনদ ও বৃত্তি প্রদান করেন। অনুষ্ঠানের মাঝে মাঝে সপ্তনাদ নিকেতনের পরিবেশনায় দেশাত্মবোধক সঙ্গীত ও শিক্ষামূলক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান  পরিবেশিত হয়।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য