Recents in Beach

Google Play App

হয়রানির অভিযোগ ভিত্তিহীন, অপপ্রচার : এইচ টি ইমাম

বিএন ডেস্কঃ
গাজীপুর সিটি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিএনপির নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার বা হয়রানির অভিযোগ ভিত্তিহীন ও অপপ্রচার বলে দাবি করেছেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য এইচ টি ইমাম।
 বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর ধানমণ্ডিতে দলীয় সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে প্রচার উপকমিটির বৈঠক শেষে সংবাদ সম্মেলনে এইচ টি ইমাম এসব কথা বলেন।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এ উপদেষ্টা আরো বলেন, ‘গাজীপুরে ব্যাপকসংখ্যক মানুষ বাস করেন, যাঁরা টাঙ্গাইলে বাড়ি, ময়মনসিংহে বাড়ি, কিশোরগঞ্জে বাড়ি এবং অন্যান্য অঞ্চলের আশপাশে। এগুলো সবগুলোই আওয়ামী লীগের অধ্যুষিত এলাকা। আওয়ামী লীগ বিপুলভাবে ওই এলাকায় জনপ্রিয়। সেখানে আমাদের কোনো কাউকে গ্রেপ্তার করার, কাউকে হয়রানি করার কোনো রকম প্রশ্নই ওঠে না। এগুলো আমরা কিছুই করছি না। এগুলো সবই অপপ্রচার, মিথ্যা কথা।’
আগামী ২৬ জুন গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভোট গ্রহণ করা হবে।
গাজীপুর সিটি করপোরেশনের এবারের নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি মনোনীত প্রার্থীসহ সাতজন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তাদের মধ্যে ছয়জন বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের মনোনীত এবং একজন স্বতন্ত্র প্রার্থী রয়েছেন। এ ছাড়া গাজীপুর সিটি করপোরেশনের ৫৭টি সাধারণ ওয়ার্ডের সাধারণ আসনের কাউন্সিলর পদে ২৫৪ জন এবং ১৯টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডের সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর পদে ৮৪ প্রার্থী এ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এবারের নির্বাচনে একটি ওয়ার্ডে সাধারণ আসনের কাউন্সিলর পদে একজন প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। এবার গাজীপুর সিটি করপোরেশনের ৫৭টি সাধারণ ও ১৯টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডে মোট ভোটার সংখ্যা ১১ লাখ ৩৭ হাজার ৭৩৬ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৫ লাখ ৬৯ হাজার ৯৩৫ এবং নারী ভোটার পাঁচ লাখ ৬৭ হাজার ৮০১।
আরো পড়ুন :  গাজীপুর সিটিতে বিএনপি নেতাদের ধরপাকড় চলছে : রিজভী
নিজস্ব প্রতিবেদক
বিএনপি অভিযোগ করেছে গতকাল প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও কমিশনারগণ গাজীপুরের প্রার্থীদের সাথে সমন্বয় সভার পর দিন থেকে সিটির বিভিন্ন ওয়ার্ডে বিএনপির নির্বাচন সংশ্লিষ্ট নেতাদের ধরপাকড় শুরু হয়েছে। ইতিমধ্যে কাশিমপুর নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহবায়ক বিএনপির ইউনিয়ন সভাপতি শওকত হোসেন সরকারকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব বলেন। নয়া পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এই সংবাদ সম্মেলন হয়।
সংবাদ সম্মেলনে রুহুল কবির রিজভী বলেন, গতরাতে কাশিমপুর ইউনিটের নির্বাচনী পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব শাহিন, কাশিমপুর নির্বাচনী পরিচালনা কমিটির সদস্য শাজাহান ডিলার, কোনাবাড়ী নির্বাচনী কেন্দ্র পরিচালনা কমিটির আহবায়ক ডাঃ মিলন, কোনাবাড়ী নির্বাচনী কেন্দ্র পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব মিলন মিয়া ও কোনাবাড়ী নির্বাচনী কেন্দ্র পরিচালনা কমিটির সদস্য সাইফুল ইসলামকে ঢাকা ডিবি পুলিশ গ্রেফতার করেছে। এছাড়া ৩০ নং ওয়ার্ড বালিয়াড়া নির্বাচনী কেন্দ্র পরিচালনা কমিটির সদস্য মোঃ আবদুস সামাদ, শাহ আলম এবং ৪৭ নং ওয়ার্ড টঙ্গী নির্বাচনী কেন্দ্র পরিচালনা কমিটির সদস্য আবু সায়েমকে গাজীপুর ডিবি পুলিশ গ্রেফতার করে।
তিনি বলেন, নির্বাচনের মিডিয়া সেল প্রধান এবং কেন্দ্রীয় বিএনপির সদস্য ডাঃ মাজহারুল আলম, কাউলতিয়া নির্বাচন পরিচালনার আহবায়ক নাজিম চেয়ারম্যান ও জেলা বিএনপির নেতা সাইফুল ইসলাম বাবুলের বাড়ীতে পুলিশ অভিযান চালিয়েছেন।
রিজভী বলেন, জাতীয়তাবাদী যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাহউদ্দিন টুকুকে মিথ্যা অভিযোগে সাজানো মামলায় গ্রেফতার করে গতকাল পুলিশ শাহবাগ থানায় রিমান্ডে নেয়। সেখান থেকে তাকে আজ সকালে পুলিশ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পরিবারের সদস্যদের দাবি টুকু গতকাল পর্যন্তও সুস্থ ছিলেন, কিন্তু রিমান্ডে নেয়ার পর তাকে শারীরিক নির্যাতন করার ফলে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পরায় তাকে পুলিশ হাসপাতালে ভর্তি করেছে। এ ব্যাপারে তারা উদ্বিগ্ন ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।
বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা ও নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে আজ সারা দেশব্যাপী বিক্ষোভ মিছিলে বাধা দেয়া হয়েছে বলে জানান রিজভী। তিনি বলেন, ফরিদপুরে জেলা বিএনপির সদস্য সিদ্ধির আহমেদ খানকে আজ পুলিশ গ্রেফতার করেছে। বান্দরবানে পৌর যুবদলের সভাপতি সেলিম রেজা, যুগ্ম সম্পাদক কাশেম, শাহাদৎ, উক্যা মার্মা, বাপ্পি চাকমা, কলেজ ছাত্রদল নেতা ইউছুফকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে এবং বেশ কয়েকজনকে লাঠিপেটা করে আহত করেছে। ঢাকা মহানগর উত্তরে বাড্ডা থানা বিএনপি নেতা জাহিদসহ ৪ জনকে পুলিশ গ্রেফতার করে।
সূত্রঃ কে/এন

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য