Recents in Beach

Google Play App

বাঁশখালীতে অদক্ষ চালকের কারণে প্রাণ হারাল ইবরাহীম সওদাগর, আহত ৩

মোহাম্মদ এরশাদঃ 
চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার সাধনপুর ইউনিয়নের বাণীগ্রাম, বন পাড়া (বেন্নার টেকে) মোড়ে  ট্রাক (ডোম্পার)- সিএনজির মুখামুখি সংঘর্ষে ১জন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে আরও ৩ জন। আহতদের মধ্যে ২ জন পুরুষ ও একজন মহিলা রয়েছেন।

জানা যায়, গত ৯ মে শনিবার বিকাল ৪ টার দিকে সাধনপুর ইউনিয়ন এর বানীগ্রাম এলাকার বেন্নার টেক মোড়ে রামদাস হাট হইতে বাজার করে সাধনপুর যাওয়ার পথে ট্রাক (ডাম্পার) এর সাথে সিএনজির মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এসময় সিএনজিতে থাকা একজনের অবস্থা আশংকাজনক হলে তাকে আয়শা ছিদ্দিক রাঃ জেনারেল হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার নিয়ে যাওয়া হয়। মেডিকেলের দায়িত্বরত ডাক্তার তাকে মৃত্যু ঘোষণা করেন। এতে আরও ৩ জন আহত হয়।

তথ্য নিয়ে জানা যায়, নিহত ব্যক্তির নাম ইব্রাহীম বয়স (৪২) আর আহতরা হলেন রহিমা বেগম বয়স (৩৫) (নিহত ব্যক্তির স্ত্রী), সিএনজির  ড্রাইভার ইনজামাম বয়স (২০)। এবং নিহত ব্যক্তির জন্মস্থান ৩নং খানখানাবাদ ইউনিয়নের প্রেমাশিয়া হলেও তারা বর্তমানে ২নং সাধনপুর ইউনিয়ন ৪নং ওয়ার্ড এলাকার বানীগ্রামে নতুন বাড়ী করে বসবাস করছেন বলে জানা যায়।

তথ্যসুত্রে জানা যায়, ট্রাকটির মালিক হলেন সাধানপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য আব্দুর হক ও মোঃ হামিদুল্লাহ সেপা। গাড়ি চালক আব্দুল হকের ছেলে। এ বিষয়ে ২ নং সাধনপুর ইউনিয়ন এর চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন চৌধুরী খোকার কাছে জানতে চাইলে তিনি সাংবাদিক কে জানান, দূর্ঘটনা সম্পর্কে তিনি অবহিত হয়েছেন এবং বাঁশখালী থানায় ফোন করে পুলিশ পাঠানো হয়েছে এবং লাশ দাপনের জন্য ও ঘটনার সুষ্ট তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্হা নেয়ার জন্য বলা হয়েছে।

এ বিষয়ে বাঁশখালী থানায় যোগাযোগ করা হলে দায়িত্বরত পুলিশকর্মকর্তা জানান,দূর্ঘটনা সম্পর্কে থানা পুলিশ ও অবগত হয়েছেন এবং ঘটনাস্হলে পুলিশ গিয়েছেন। তবে এখন পর্যন্ত কেও মামলা করেনি,যদি নিহত ব্যাক্তির পরিবারের পক্ষ হতে কেও মামলা করেন তাহলে বাঁশখালী থানার পক্ষ হতে আইনানুগ ব্যবস্হা নেয়া হবে। নিহত ব্যক্তির পক্ষ হতে মামলা করা হবে কিনা জানতে চাইলে মোবাইল ফোনে  মৃত ব্যক্তির বাগিনা সেকান্দর জানায় তারা মামলা করবে না। সামজিক ভাবে বিষয়টা সমাধান করবেন। এদিকে এলাকার সূত্রে জানা যায়, ঘটনাটি ১ লক্ষ টাকার বিনিময়ে মিটমাটের চেষ্টা চলছে।    

সে আরও জানায় আহতরা বর্তমানে চিকিৎসা শেষে নিজ বাড়ি তে অবস্থান করছেন। এদিকে ঘটনাস্থল হতে ট্রাক(ডাম্পার) এর ড্রাইভার গাড়ী নিয়ে পালিয়ে যায় বলে জানা যায়। পবিত্র রমজান মাসে এমন দূর্ঘটনার জন্য অদক্ষ চালক দায়ী বলে মন্তব্য করছেন স্হানীয় প্রত্যক্ষদর্শীরা। বর্তমান সময়ে লাইসেন্স ছাড়া লক্কর-ঝক্কর গাড়ী আর ড্রাইভিং লাইসেন্স ছাড়া ড্রাইভিং করে নানান দূর্ঘটনার জন্ম দিচ্ছে অদক্ষ ড্রাইভাররা।এর দায়ভার নিবে কে?প্রশ্ন ভুক্তভোগী জনসাধারণের।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য