Recents in Beach

Google Play App

‘শেখ হাসিনাকে ডাকসুর আজীবন সদস্যপদ দেওয়া হবে’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসুর) আজীবন সদস্যপদ দেওয়া হবে। শনিবার (১৬ মার্চ) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ও ডাকসুর এজিএস সাদ্দাম হোসেন টেলিফোনে বাংলা ট্রিবিউনকে এ তথ্য জানিয়েছেন।
প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ডাকসু নেতাদের সাক্ষাতে কি কথা হয়েছে, জানতে চাইলে সাদ্দাম হোসেন বলেন, ‘আমরা স্বপ্নের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় গড়ার এবং আমাদের শিক্ষার্থীদের প্রত্যাশার কথাগুলো প্রধানমন্ত্রীর কাছে তুলে ধরেছি। আমরা আবাসিক বিশ্ববিদ্যালয়, ডিজিটাল বিশ্ববিদ্যালয় ও কেন্দ্রীয় লাইব্রেরি আধুনিকায়ন নিয়ে কথা বলেছি। শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে নির্বাচিত নেতৃত্ব প্রধানমন্ত্রীর কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছি। কারণ, তার মাধ্যমেই আমরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালেয়ের শিক্ষার্থীরা ভোটাধিকার ফিরে পেয়েছি। এবং আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি, ডাকসুর প্রথম বৈঠকে বঙ্গবন্ধু কন্যা ও দেশরত্ন শেখ হাসিনাকে ডাকসুর আজীবন সদস্য হিসেবে ঘোষণা করবো।’
কবে প্রথম বৈঠক করা হবে, জানতে চাইলে সাদ্দাম হোসেন বলেন, ‘এটা ডাকসুর প্রেসিডেন্ট ও বিশ্ববিদ্যালয় ভিসি যেদিন তারিখ নির্ধারণ করবেন, সেই দিন হবে। আমরা ইতোমধ্যে উপাচার্যকে বলেছি, দ্রুততার সঙ্গে যেন অভিষেক অনুষ্ঠানটি হয়।’
এ প্রসঙ্গে নুর কী বলেছেন, তিনি দায়িত্ব নেবেন কিনা জানতে চাইলে সাদ্দাম হোসেন বলেন, ‘সেটা তো অবশ্যই। এটা তো আজকে না, তিনি তো আগেই বলেছেন, ছাত্রলীগের সঙ্গে মিলে তিনি কাজ করবেন। তিনি তো প্রধানমন্ত্রীর কাছেও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।’
নুর নাকি প্রধানমন্ত্রীর মাঝে মায়ের প্রতিচ্ছবি পান বলেছেন উল্লেখ করে জানতে চাইলে সাদ্দাম হোসেন বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর মাঝে মায়ের প্রতিচ্ছবি পান, এটা বলেছেন। ছাত্রলীগ করতেন সেই স্মৃতিচারণও করেছেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রীর ভূমিকার কথা স্মরণ করেছেন।’
নুর প্রধানমন্ত্রীর পাঠানো গাড়িতে না উবারে গেছেন জানতে চাইলে সাদ্দাম হোসেন বলেন, ‘সেটা আমি জানি না। আমরা সবাই বিশ্ববিদ্যালয়ের গাড়িতে করে গেছি। যে গাড়িতে শিক্ষার্থীরা চলাফেরা করে।’   
১১ মার্চ ডাকসুর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে ভিপি পদে সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতা নুরুল হক নুর ভিপি (সহসভাপতি), ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী জিএস (সাধারণ সম্পাদক) নির্বাচিত হন।
/বাংলা ট্রিবিউন!

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য