Recents in Beach

Google Play App

ইয়ং টাইগার্স অনূর্ধ্ব-১৪ ক্রিকেট টুর্নামেন্টে দ্বিতীয় ম্যাচেও চট্টগ্রামের সহজ জয়


মোহাম্মদ এরশাদ
ইয়ং টাইগার্স অনূর্ধ্ব-১৪ ক্রিকেট টুর্নামেন্টে দ্বিতীয় ম্যাচেও চট্টগ্রামের সহজ জয় পেয়েছে। গতকাল নোয়াখালী’র শহীদ ভুলু স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত খেলায় চট্টগ্রাম জেলা দল ১১৩ রানের বড় ব্যবধানে ব্রাক্ষণবাড়িয়া জেলাকে হারিয়েছে।গত কাল টসে জিতে চট্টগ্রাম জেলা দল প্রথমে ব্যাট করে ৪৯.৫ ওভারে সব কয়টি উইকেট হারিয়ে ২২৭ রান সংগ্রহ করে। দলের হয়ে রহমত উল্লাহ সাব্বির এবং তামিমের দুই অর্ধশতকে চট্টগ্রাম দ্বি- শতাধিক রানের ইনিংস গড়ে তোলে। রহমত উল্লাহ ১১০ বলে ৬৩ এবং তামিম ৮২ বলে ৬৪, ওবাইদুর রহমান ইশতি ১৭ তালহা যুবায়ের ২১ রান সংগ্রহ করেন।অতিরিক্ত থেকে আসে ৪৬ রান। ব্রাক্ষণবাড়িয়া দলের হয়ে, রহমান ৩টি নাজমুল ইসলাম, জুনায়েদ ২টি এবং সাইমন খন্দকার ও খোরশেদ আলম ১টি করে উইকেট লাভ করেন।
জবাবে ২২৮ রানে লক্ষ ব্যাট করতে নেমে ব্রাক্ষণবাড়িয়া ৩৮.৪ ওভারে সবকয়টি উইকেট হারিয়ে ১১৪ রান করতে সক্ষম হয়, দলের হয়ে খোরশেদুল আলম ৩৮ সারওয়ার আহমেদ ও এ রহমান প্রত্যেকে ১৪ রান করে সংগ্রহ করেন। অতিরিক্ত থেকে আসে ২৫ রান চট্টগ্রামের হয়ে আশরাফুল রহমান ৪টি ওবাইদুর রহমান ২টি ও মোঃ আসিফ, আবদুল্লাহ হানিফ এবং মোঃ সুমন প্রত্যেকে ১ টি করে উইকেট লাভ করেন। পরবর্তী খেলা আগামী ১৩ জানুয়ারী কুমিল্লার বিরুদ্বে বেগমগঞ্জ স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে। চট্টগ্রাম ভেন্যুতে অনুষ্টিত খেলায় চাঁদপুর ১৬৪ রানে বান্দরবান কে বড় ব্যবধানে পরাজিত করে।
চাঁদপুরের হয়ে নাছির আহমেদ মাত্র ৯ রান দিয়ে ৬ উইকেট লাভ করেন। এছাড়া তামিম শেখ ২টি হৃদয় মিজি এবং অনুরাগ মিত্র ১টি করে উইকেট লাভ করেন।
গত কাল সাগরিকা মহিলা কমপ্লেক্স মাঠে অনুষ্ঠিত খেলায় টসে জিতে চাঁদপুর প্রথমে ব্যাট করে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ২০৯ রান সংগ্রহ করে। দলের হয়ে অনুরাগ মিত্র ৫৬ রাকিব হোসেন ৪৩ আবদুল মোতালেব ২৫ বিস্ময়কর ১০ নাছির আহমেদ ১৩ এবং আলী ১৬ রান সংগ্রহ করেন। বান্দরবানের হয়ে মোহাম্মদ রাজিব ৩টি দ্বীপায়ন, রাসেল উদ্দিন ২টি এবং জয় দাশ পান ১টি করে উইকেট লাভ করেন। জবাবে ২১০ লক্ষকে ব্যাট করতে নেমে বান্দরবান ২০.২ ওভারে সবকয়টি উইকেট হারিয়ে মাত্র ৪৫ রানে গুটিয়ে যায়। দলের হয়ে কোন ব্যাটসম্যান দ্বি- অংকের ঘরে পৌছাতে পারেননি। এক মাত্র মোহম্মদ রাজিব ২৯ বল খেলে সর্বোচ্চ ৮ রান করেন।
অতিরিক্ত থেকে আসে ১৫ রান।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য