Recents in Beach

Google Play App

বাঁশখালীর প্রধান সড়ক সম্প্রসারণের কাজে ধীর গতি-জনদুর্ভোগ

বি,এন ডেস্কঃ
বাঁশখালীর প্রধান সড়ক সম্প্রসারণের কাজে একদিকে ধীর গতি অপরদিকে দু’পাশের অবৈধ স্থাপনা না সরানোর ফলে সাধারণ জনগণ প্রকৃত সুফল পাচ্ছে না। অপরদিকে দীর্ঘদিন যাবত কাজ চলমান থাকায় ধুলায় ধুলায়িত হচ্ছে সর্বস্তরের জনগণ । বাশঁখালী প্রধান সড়কের যে স্থান সরু ও বাঁকা এ রকম প্রায় ৭.৫ কিলোমিটার সড়কের দু’পাশে ৩ ফুট করে সম্প্রসারণ করার কাজ বর্তমানে চলমান । প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত ২১ মার্চ পটিয়া জনসভায় অপরাপর উন্নয়ন কাজের সাথে প্রায় ২৭ কোটি টাকা ব্যয়ে বাশঁখালীর প্রধান সড়ক ৭.৫ কিলোমিটার সড়কে দু’পাশে ৩ ফুট করে সম্প্রসারণ, চারটি কালভার্ট নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন। তারপর থেকে শুরু হওয়া কাজ চলতি বছরের মার্চে শেষ হওয়ার কথা থাকলেও দীর্ঘদিন যাবত বন্ধ রয়েছে। অপরদিকে একমাত্র প্রধান সড়কের দু’পাশের অবৈধ স্থাপনাগুলো উচ্ছেদ কিংবা না সরানোর ফলে সাধারণ জনগণ প্রকৃত সুফল থেকে বঞ্চিত হবে বলে অধিকাংশ জনগণের অভিমত। এদিকে প্রধান সড়ক সম্প্রসারন করতে গিয়ে দু’পাশের গাছগুলো বিশেষ টেন্ডারের মাধ্যেমে কর্তন করা গেলেও পল্লী বিদ্যুতের খুটিগুলো সরানো সম্ভব হয়নি । অধিকাংশ এলাকায় খাম্বার কারণে প্রধান সড়ক সম্প্রসারণ করতে না পারলেও তা সরানোর ব্যাপারে কোন ধরনের ব্যবস্থা গ্রহন করছে না পল্লী বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষ।
অপরদিকে দীর্ঘ সময় আগে শুরু হওয়া কাজ রাস্তা সম্প্রসারণে ভূমি অধিগ্রহন থেকে শুরু করে নানা কারণে ২০১৯ সালের মার্চ পর্যন্ত লাগবে বলে সওজ এর পক্ষ থেকে জানা যায় । সড়কের দু’পাশে ১২ ফুট থেকে শুরু করে তা ১৮ ফুট করা হলেও যারা পূর্ব থেকে দখল করে আছে প্রধান সড়কের দু’পাশ তারা বিন্দু মাত্র ছাড়তে নারাজ। বাশঁখালীর প্রধান সড়কের সাথে অধিকাংশ দোকান পাঠ এত বেশি লাগানো যে, দোকানের অধিকাংশ মালামাল রাস্তার উপর রাখতে হয় ব্যবসায়ীদের । তার উপর প্রধান সড়কের উপর ৮/১০ টি বাজার বসে প্রতিনিয়ত। জানা যায়, বাঁশখালীর যেসব এলাকায় বাজার অবস্থিত এবং প্রতিনিয়ত যানজট সৃষ্টি হয়ে দীর্ঘ ভোগান্তির কারণ হয় সেসব এলাকায় ১৮ ফুট থেকে ২৪ ফুট চওড়া করা হবে। সেগুলো হল কালীপুরের গুনাগরী এলাকা বৈলছড়ি ইউনিয়নের বৈলছড়ি বাজার ও চেচুরিয়া বাজার এলাকা, বাঁশখালী পৌরসভার জলদী মিয়ার বাজার এলাকা, চাম্বল ইউনিয়নের চাম্বল বাজার এলাকা, শীলকূপের টাইম বাজার এলাকা ২৪ ফুট চওড়া করা হবে। তাছাড়া যেসব বাঁকে প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনা সংঘটিত হয় সেসব বাঁকগুলো ২৪ ফুট প্রশস্ত ও চওড়া করা হবে। তা হলো পুকুরিয়া ইউনিয়নের চাঁদপুর ও চন্দ্রপুর পাহাড় এলাকা, বৈলগাঁও মোড় এলাকা, পুর্ব বৈলগাঁও প্রাথমিক বিদ্যালয় ও খাদি মুড়া এলাকা, সাধনপুর ইউনিয়নের বণিক পাড়া, ব্রাহ্মণপাড়ার টেক ও লটমণি এলাকার টেকগুলো সোজা করা হবে। এছাড়া সাধনপুর ইউনিয়নের বাণীগ্রামে ২টি ও চাম্বল ইউনিয়নের চাম্বল এলাকায় ২টি করে ৪টি কালভার্ট নির্মাণ করা হবে। বাশঁখালীর প্রধান সড়কের সম্প্রসারন সর্ম্পকে জানতে চাইলে দোহাজারী সড়ক ও জনপদ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী দৈনিক আজাদীকে বলেন, রাস্তার দু’পাশ সম্প্রসারণে জায়গা অধিগ্রহণে কিছু সময় ব্যয় হচ্ছে । তিনি বাঁশখালীর চলমান ৭.৫ কিলোমিটার উন্নয়ন কাজের জন্য প্রায় ২৭ কোটি টাকা বরাদ্দ রয়েছে যা ২০১৯ সাল মার্চ পর্যন্ত সময় রয়েছে বলে জানান।
সুত্রঃদৈনিক আজাদী

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য