Recents in Beach

Google Play App

ডিমলায় কিশোর-কিশোরী পুষ্টি উন্নয়ন কার্যক্রমের ওরিয়েন্টেশন


মোঃ সাদিকউর রহমান শাহ্ (স্কলার)ঃ ইচ্ছাই শক্তি সু স্বাস্থ্যই মুক্তি, পুষ্টি পেতে তাই তথ্য জানা চাই, বাল্য বিয়ে করবো না, বাল্য বিয়ে দিবো না, কুড়িতে বুড়ি নয়, বিশের আগে বিয়ে নয় বিভিন্ন শ্লোগানে অনুষ্ঠিত হলো স্বর্ণ কিশোরী ওরিয়েন্টেশন। ১২ সেপ্টেম্বর বুধবার সকালে নীলফামারীর ডিমলায় ডিমলা উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে “স্বর্ণ কিশোরী” নেটওয়ার্ক ফাউন্ডেশনের আয়োজনে এবং ইউনিসেফ এর সহযোগিতায় কিশোর-কিশোরী পুষ্টি উন্নয়ন কার্যক্রমের এক দিনের ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা হয়েছে। ওরিয়েন্টেশনের ডিমলা উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক লুৎফর রহমানের সভাপ্রতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা তবিবুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোছা: নাজমুন নাহার মুন, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আব্দুল হালিম, জাইকা প্রতিনিধি বিভা রায় প্রমুখ। ওরিয়েন্টেশনে কিশোর-কিশোরীদের জীবন মান,স্যানিটেশন ব্যবস্থা, কিশোরী বয়সের সকল সমস্যা অভিভাবকের সাথে শেয়ারিং ব্যবস্থার নানাদিক তুলে ধরে বক্তৃতা করেন অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাজমুন নাহার মুন। সাফল্য গাঁথা নিজ জীবনের সফলতাকে উদাহরণ দিয়ে উপস্থিত কিশোর-কিশোরীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আমরা সমাজে নানা ধরনের মানুষ রয়েছি। কেউ চাকুরী করছি কেউ বা ঘরে বসেই নানা কাজে ব্যস্ত সময় কাটিয়ে দিন অতিবাহিত করছি। তোমরা যারা আজকে ছোট আগামী দিনে তোমরাই বড় হবে। আমার মত দেশের হাল ধরে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে। এজন্য চাই তোমাদের অধ্যাবসায় এবং কঠোর পরিশ্রম। সেই কারনেই তোমারা কখনই বাল্য বিয়ে করবে না। তোমারা তো জানো বাল্য বিয়ে অপরাধ এবং সমাজের ব্যাধি। এ ছাড়াও তোমরা তো ফুলের একটি কলি মাত্র। এই ফুলকে যতœ করেই বড় করতে হবে। তবেই না ফুলের সুগন্ধি চারি দিকে ছড়িয়ে পড়বে ! আমি চাই তোমরা বড় হয়ে এভাবে তোমাদের সফলতা দিয়ে নিজেকে ফুলের সুবাসের মতোই সুগন্ধ ছড়াবে। তিনি বক্তৃতায় আরো বলেন, আজকে তোমরা শপথ নিয়েছো তোমারা জীবনে চমর শিখরে না পৌছানো পর্যন্ত লেখাপড়া চালিয়ে যাবে এবং বাল্য বিয়ে করবে না। তোমরাই হবে স্বর্ণ কিশোরী। এ জন্য তোমাদের শারীরিক গঠনে সকলকে পুষ্টির উন্নয়নে নিজেদেরকে পুষ্টির চাহিদা মেটাতে হবে। তিনি নারী শ্রমের উপর গুরত্ব দিয়ে বলেন,মেয়েরা স্বামী-সংসারে থেকেও জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত পরিশ্রম করেই চলে। পরিশেষে তিনি সকল কিশোর-কিশোরীদের উন্নয়ন প্রত্যাশা করে বক্তৃতা শেষ করেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য